বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে ১৩০০ প্রতিবন্ধীর ভাতার বই করে দিলেন এমপি আজিজ





হা‌দিউল হৃদয়: বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ ঈদের আগে ভাতা তোলার জন্য ১৩০০ প্রতিবন্ধীর ভাতার বই নিজ অর্থে করে দিয়েছেন।
জানা গেছে, তাড়াশ উপজেলায় বয়স্ক ৯ হাজার ৬০২, বিধবা ৫ হাজার ৮৫১, প্রতিবন্ধী ৩ হাজার ৬১০সহ মোট ১৯ হাজার ৬৩ জন ভাতাভোগী রয়েছেন। এরমধ্যে ২০২৩- ২৪ অর্থ বছরে তাড়াশ সমাজসেবা অধিদপ্তরের আওতায় উপজেলার আট ইউনিয়ন এবং একটি পৌর এলাকার আরো এক হাজার ৩০০ জন প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য নতুন করে মনোনীত হয়েছেন। কিন্তু তাঁরা এখনও ভাতার বই পাননি।


এ দিকে সংশ্লিট সমাজসেবা অধিদপ্তরে সূত্রে জানা গেছে, ভাতার বইয়ের সংকটের কারণে অধিদপ্তরে বার বার তাগাদা দিয়েও গত ছয় মাসে প্রতিবন্ধী ভাতার বই আর আনতে পারেননি।


ফলে এ উপজেলার নতুন করে এক হাজার ৩০০ জন প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য মনোনীত প্রতিবন্ধীরা বই সংকটের কারণে ভাতার টাকা তুলতে পারছেন না। এমনকি ভাতার বইয়ের সংকটের কারণে ঈদের আগে ওই প্রতিবন্ধীদের প্রাপ্য ভাতার মাসিক ৮৫০ টাকা করে এজেন্ট ব্যাংক এশিয়া থেকে তুলতে পারবেন না। কারণ এজেন্ট ব্যাংক এশিয়ার এজেন্টের মাধ্যমে ভাতার টাকা তুলতে গেলে বইয়ের দরকার হয়।
এ জন্য তাঁদের একটি করে ভাতার বই জরুরী প্রয়োজন হয়ে পড়ে।


এই বিষয়টি নিয়ে গত বৃহস্পতিবার উপজেলা আইন- শৃঙ্খলা কমিটির সভায় তাড়াশ উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কে এম মনিরুজ্জামান স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজের স্মরণাপন্ন হন। তখন সংসদ সদস্য তাৎক্ষনিক ভাবে বিস্তারিত জেনে এক হাজার ৩০০ প্রতিবন্ধী ভাতার বই নিজ খরচে করে দেবার ঘোষণা দেন।


পাশাপাশি রোববার (১৭ মার্চ) জাতির জনকের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসে নতুন করে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য মনোনীতদের মাঝে ভাতার বই বিতরণ ঘোষণা দেন। সেই সাথে ঈদের পূর্বেই তাঁদের ভাতার টাকা নিশ্চিত করতে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নিতে বলেন।


এ প্রসঙ্গে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কে এম মনিরুজ্জামান বলেন, অধ্যাপক ডা. আব্দুল আজিজ এমপি স্যারের বদ্যনতায় এক হাজার ৩০০ প্রতিবন্ধী ভাতার বই ওনার নিজ খরচে ছাপানো শুরু হয়েছে। আশা করি ঈদের আগেই নতুন করে মনোনীত এক হাজার ৩০০ প্রতিবন্ধী তাঁদর প্রাপ্য ভাতার টাকা পেয়ে যাবেন।


সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ জানান, আমার আসনের প্রতিবন্ধীরা একটা ভাতার বইয়ের কারণে ঈদের আগে ভাতা পাবে না এটা মেনে নেওয়ার যায় না। তাই বিষয়টি জানার পরপরই ১৩০০ ভাতার বই করে দিয়েছি।

Share This Article On:

মন্তব্য করুন
Submit Comment

Privacy Policy মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url